সরাসরি প্রধান সামগ্রীতে চলে যান

পোস্টগুলি

অক্টোবর, ২০২০ থেকে পোস্টগুলি দেখানো হচ্ছে

শিক্ষামূলক ঘটনা: বুড়ি ও সওদাগরের আমানত

শিক্ষামূলক ঘটনা: বুড়ি ও সওদাগরের আমানত সবুজদিয়া গ্রামে এক সওদাগর বাস করতো। সে বাণিজ্য করতে দূর দেশে যাবে। তার কাছে কিছু সোনার মোহর ছিলো। সেই গ্রামে তার আপন বলতে কেউ নেই। যারা ছিলো তাদের ওপর সওদাগরের কোন আস্থা ছিলো না। মোহরগুলো কোথায় রেখে যাবে এই নিয়ে মহা দুশ্চিন্তায় পড়ে গেল। পরে খুব চিন্তাভাবনা করে বের করলো। পাশের বাড়িতে বুড়িমা আছে। খুবই ভালো মানুষ। ঈমানদার। পাঁচ ওয়াক্ত নামাজ পড়ে। রোজা পালন করে। তার কাছে রাখা যেতে পারে। সে আমানতের কোন দিনও খেয়ানত করবে না। পরদিন সে বুড়িমার কাছে গেল এবং বলল ‘বুড়িমা এই পুঁটলিটা একটু যত্ন করে গুপ্তস্থানে লুকিয়ে রাখবে। আমি দূর দেশে সওদা করতে যাচ্ছি। ফিরতে ছয় মাস সময় লেগে যাবে। ফিরে এসে তোমার কাছ থেকে আমার আমানতের জিনিস আমি ফেরত নিবো।’ বুড়ি মা বললো: ‘ঠিক আছে বাবা, আমি বেঁচে থাকতে তোমার এই জিনিস কাউকে ধরতে দেবো না।’ সওদাগর এবার নিশ্চিন্তে বাণিজ্য করতে চলে যায়। সওদাগর যাবার কিছুদিন পরই বুড়িমা অসুস্থ হয়ে পড়ে। দিন যায় রাত যায় বুড়িমার অসুখটা বেড়েই চলে। বুড়িমার খুবই কষ্ট। দিন দিন কষ্ট আরো বেড়ে যায়। বুড়িমা সওদাগরের এই আমানতের জিনিস নিয়ে

ফিলিপাইনে মোরগের হাতে পুলিশ কর্মকর্তা খুন!

ফিলিপাইনে মোরগ লড়াই উচ্ছেদ করতে গিয়ে মোরগের কাছেই খুন হলেন একজন পুলিশ কর্মকর্তা। আর এমন বিস্ময়কর ঘটনা ঘটেছে দেশটির সামারা প্রদেশে। করোনার ( corona ) সময় যেকোনো গণজমায়েত নিষিদ্ধ হওয়ায় সেখানে অভিযান চালিয়েছিল পুলিশ। পুলিশ ওই অভিযানে মোড়গলড়াই হওয়া একটি গ্রামে গিয়ে হাজির হয়। এসময় লেফট্যানেন্ট ক্রিশ্চিয়ান বোলোক একটি লড়াকু মোরগ ধরে ফেলেন। অবৈধ ভিড়ের প্রমাণ হিসেবে মোরগটি ধরতে গিয়েছিলেন তিনি। এসময় ওই মোরগটির পায়ে লাগানো ব্লেড পুলিশ অফিসারের উরূতে বিঁধে যায়। এতে প্রচুর রক্তক্ষরণ হয় তার। এরপর আস্তে আস্তে তিনি মৃত্যুর কোলে ঢোলে পরেন। সামারার পুলিশ প্রধান কর্নেল আর্নেল আপুদ এমনটাই জানিয়েছেন। তিনি আরো বলেন, এমন ঘটনা আমার ২৫ বছরের চাকরি জীবনে দেখিনি। এটা দুর্ভাগ্যজনক দুর্ঘটনা। এর কোনো ব্যাখ্যা নেই আমার কাছে। এই প্রথম মোরগের জখমের কারণে আমার কোনো সহকর্মীকে হারালাম। এ ঘটনায় বাজির আসর থেকে তিনজনকে আটক করেছে পুলিশ। এসময় আরো তিনজন সন্দেহভাজনকে ছেড়ে দেওয়া হয়। এছাড়াও মোরগলড়াই খেলায় ব্যবহার হওয়া দুইটি মোরগ আটক করেছে পুলিশ। মোরগলড়াই বা ‘টুপাডা’ ফিলিপাইনের একটি জনপ্রিয় রক্ত র

৬০ কিমি হেঁটে ২৬ দিন পর মনিবের কাছে কুকুর!

কুকুর ছানা কুকুরটির এভাবে বাড়ি ফেরার ঘটনা যারাই শুনছেন তারাই অবাক হয়ে যাচ্ছেন! মনিবের সঙ্গে বেড়াতে গিয়ে হারিয়ে গিয়েছিল সে। অনেক খোঁজাখুঁজির পর প্রিয় কুকুরকে ফিরে পাওয়ার আশা যখন সবাই ছেড়ে দিয়েছে  মনিব , তখনই বাড়ি ফিরেছে সে। জানা গেছে, ২৬ দিনে প্রায় ৬০ কিলোমিটার পথ হেঁটেছে সে। চীনের হাংঝোউ কিউ নামে এক ব্যক্তির পোষ্য দোউ দোউ। ওই পরিবারের সবারই খুব আদরের সে। সবাই মিলে বেড়াতে গিয়ে হারিয়ে যায়  কুকুর ছানাটি । বাড়ি থেকে প্রায় ৬০ কিলোমিটার দূরে একটি সার্ভিস স্টেশনে গাড়ি দাঁড় করিয়েছিল কিউ। সে সময়ই দোউ দোউ হারিয়ে যায়। অনেক খুঁজেও পাওয়া যায়নি। হতাশ হয়ে সবাই বাড়ি ফিরে আসেন। দোউ দোউ হারিয়ে যাওয়ায় পরিবারের সবারই মন খারাপ ছিল। একটা সময় তাকে ফিরে পাওয়ার আশাও ছেড়ে দিয়েছিলেন তারা। কিন্তু ঠিক ২৬ দিন পর বাড়ি ফিরে আসে দোউ দোউ। দরজার সামনে তাকে দাঁড়িয়ে থাকতে দেখে সবাই চমকে যান। কিন্তু বুঝা যায় খুবই ক্লান্ত সে। অনেক পথ হাঁটার ক্লান্তি তো ছিলই। সেই সঙ্গে সারা গায়ে ময়লা। এখন অবশ্য একেবারে ফিট দোউ দোউ। একটু রোগা হয়ে যাওয়া ছাড়া কোনো বদল নেই। বাড়ি ফেরার আনন্দে চোখ গুলো